21 C
dhaka
শনিবার, ৫ই ডিসেম্বর, ২০২০ ইং | ২০শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | সকাল ১০:৫৮
ভূমিহীন বার্তা

তেঁতুলিয়ায় ভূমিহীন মহিলার অর্পিত জমি দখলের পাঁয়তারা

মুহম্মদ তরিকুল ইসলাম, পঞ্চগড় জেলা প্রতিনিধি: পঞ্চগড় জেলাধীন তেঁতুলিয়া উপজেলায় ভূমিহীন মহিলার অর্পিত সম্পত্তি থেকে বেদখল করার পাঁয়তারার অভিযোগ উঠেছে। উপজেলার বাংলাবান্ধা ইউপির দিঘলগাঁও গ্রামের মমিনুর রহমানের স্ত্রী স্মৃতি আক্তার গত ২৩শে মার্চ ২০২০ উপজেলা সহকারী কমিশনার(ভূমি) বরাবরে অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগে একই গ্রামের মৃত হাফিজ উদ্দিনের ছেলে নুর ইসলাম এবং মৃত মোশারফ হোসেনের ছেলে আনসার আলীকে বিবাদী করা হয়েছে।

সরেজমিনে গিয়ে জানাগেছে, তেঁতুলিয়া উপজেলার সিপাইপাড়া মৌজার জে.এল.নং ০২-এর এস.এ খতিয়ান নং ২৫৭ এর মূল রেকর্ডীয় মালিক ছিলেন, ভারতের চন্দ্রলাল আগরওয়ালার পুত্র ভজনলাল আগরওয়ালা। এই খতিয়ানের এস.এ ১০১৬ নং দাগের ৫৫ শতক জমির মধ্যে ০৫শতক এবং ১০১৭নং দাগের ০৫শতক জমির মধ্যে সমুদয় জমিসহ মোট ১০শতক জমি ভূমিহীন স্মৃতি আক্তার-এর স্বামী মমিনুর রহমান গত ২৩/০২/২০১৬ ইং তারিখে একই গ্রামের মৃত মোশারফ হোসেনের ছেলে আনসার আলীর কাছ থেকে ৩০০ (তিনশত) টাকার স্ট্যাম্পে নাদাবী পত্র লিখিয়ে নেন। স্থানীয় সূত্রে জানাযায়, দীর্ঘদিন ধরে মমিনুর রহমান বসতবাড়ীসহ চাষাবাদে দখলে আছেন।

অপরদিকে ওই দাগে বিবাদীরা না দাবীর মূলে ভূমিহীন স্মৃতি আক্তারকে তার ‘খ’ তফসিলভুক্ত ১০শতক জমির মধ্যে ১০১৭ নং দাগে ৫শতক জমি বেদখল করার জন্য পাঁয়তারা করছে।

ভূমিহীন স্মৃতি আক্তার জানান, তিনি দীর্ঘ ২যুগ ধরে ‘খ’ তফসিলভুক্ত অর্পিত ১০১৬ এবং ১০১৭ নং দাগে বাড়ীঘর নির্মাণসহ চাষাবাদে ভোগদখল করেন। শান্তিপূর্ণভাবে ভোগদখলে থাকাবস্থায় বিবাদীরা তাকে নানান ভাবে বেদখল করার চেষ্টা করছেন। তিনি জানান, বিবাদী নুর ইসলাম গত ০৮/০৫/২০১৬ ইং তারিখে মৃত মোশারফ আলীর ছেলে আব্দুল আজিজ, আনসার আলী, আইবুল আলম এবং আহসান হাবীবের কাছ থেকে ১০১৬ এবং ১০১৭ নং দাগে না দাবী নিয়ে সেই না দাবীর মূলে তাকে বিভিন্ন মামলা মোকদ্দমায় ফেলিয়ে বেদখল করার পাঁয়তারা চালাচ্ছে। তিনি আরও জানান, বিবাদী নুর ইসলামের নাদাবীর পূর্বে তিনি ১০১৭ নং দাগের সমুদয় অংশ আনসার আলীর কাছ থেকে না দাবী মূলে মালিকানা অর্জন করেন। বিবাদী নুর ইসলাম তেঁতুলিয়া সেটেলমেন্ট অফিসের দালালি করে অবৈধভাবে উপার্জিত অর্থের প্রভাব খাটিয়ে এবং ফরমান, শমসের, তরিকুল, আনসার ও আলমগীরের ইন্ধনে তার ওপর মিথ্যা মামলা দিয়ে তাকে হয়রানি করছে জানান তিনি।

অপরদিকে নুর ইসলাম মুঠোফোনে জানান, জমিটি সে নাদাবী নিয়েছেন এবং সে ভোগদখলে আছেন। ১০১৭দাগে স্মৃতি আক্তার বালি ফেললে তিনি তার বিরুদ্ধে তেঁতুলিয়া মডেল থানায় একটি জিডি আনয়ন করেন। তিনি আরও জানান, কয়েকদিন আগে স্মৃতি আক্তারসহ কয়েকজনের বিরুদ্ধে আরও একটি মামলা করেন। এতে তিনি বেদখল করার বিষয়টি অস্বীকার করেন।

ইউনিয়ন ভূমি অফিস সূত্রে জানান, যে দাগে বিবাদ চলছে সে দাগগুলো অর্পিত জমাজমি। উভয়কে স্ব-স্ব দখলে থাকার জন্য বলা হয়েছে।

উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মাসুদুল হক জানান, তিনি এ বিষয়ে অভিযোগ পেয়েছেন এবং উভয়ে পক্ষকে স্ব-স্ব দখলে থাকার জন্য লিখিতভাবে ইউনিয়ন তহশীল অফিসে বলা হয়েছে। তবে অর্পিত জমাজমির এই জমি সরকারিভাবে তালিকাভুক্ত করতঃ লিজ দেয়ার সুব্যবস্থা করবেন।

আরও পড়ুন...

ব্যবসায়ীদের ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে: যমুনা গ্রুপ চেয়ারম্যান

অনলাইন ডেস্ক, ভূমিহীন বার্তা

ইরানি জেনারেলকে হত্যা মধ্যপ্রাচ্যে উত্তেজনা বাড়াবে: রাশিয়া

অনলাইন ডেস্ক, ভূমিহীন বার্তা

মওলানা ভাসানী শাসকগোষ্ঠীর জুলুম-নির্যাতন-শোষণের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়িয়েছিলেন

অনলাইন ডেস্ক ভূমিহীন বার্তা